adds

আবার নতুন করে শুরু-৮ম পর্ব

                                           আবার নতুন করে শুরু-৮ম পর্ব

Previous part

সৃজাকে দেখে তীর্থের রাগ আর বেড়ে গেল, গাড়িটা নিয়ে ঠিক সৃজার সামনে দাঁড়াল আর বলল " কি হল এত শরীর খারাপের পরে ও সুদীপ্ত একা ছেড়ে দিল 😭😢। চল আমি ই তোমাকে অফিসে ছেড়ে দি"। ............

তীর্থের মুখ থেকে এমন বাজে কথা শুনে সৃজার খুব কষ্ট হচ্ছিল। কিন্তু সৃজা ভাবল ঠাণ্ডা মাথায় কথা বললে হয়ত ভুল বোঝাবুঝি গুলো ঠিক হয়ে যাবে। তাই সে গাড়িতে উঠে বসল। সঙ্গে সঙ্গেই তীর্থ  সৃজাকে বলল "গাড়িতে কিছু অসুবিধে হলে বলবেন না হলে তো আবার আপনার সুদীপ্ত এসে আমাকে বকাবকি ও করতে পারে তাই না? "

সৃজা তীর্থ তুমি আমাকে ভুল ভাবছ। সুদীপ্তের সাথে আমার কোন সম্পর্ক নেই। কাল হঠাৎ সুদীপ্তের সাথে দেখা হয়েছিল, আর আমার শরীরটা ও খুব খারাপ করছিল, তাই সে আমাকে বাড়ি ছেড়ে দিতে এসেছিল আর কিছুই না। তুমি আমার সম্পর্কে এমন বাজে কথা ভাবতে পার বা আমাকে এমন বলতে পার আমি ভাবতে ও পারছিনা। আমাকে এই সময় আর কষ্ট দিও না। 

তীর্থ ও তাই, আমি বুঝি তোমাকে কষ্ট দিচ্ছি? তবে আমাকে মাপ করে দিও আর আমি কাল রাতে ই ঠিক করে নিয়েছিলাম তোমাকে আমি মুক্তি দিতে চাই। আমি তোমাকে মিথ্যে সম্পর্কের বাঁধনে বেঁধে রাখতে চাই না। তুমি ডিভোর্স পেপার নিয়ে আসবে আমি সই করে দেব। তোমাকে এই সম্পর্কে আর বেঁধে রাখব না। এমন সময় সৃজার মোবাইলে সুদীপ্তের ফোন এল। তীর্থ আর ও রেগে সৃজাকে বলে উঠল বলে দাও আমি তোমাকে মুক্তি দিয়ে দিয়েছি আর ভাবতে হবে না এবার আমাকে ডিভোর্স দিয়ে দুজনে ভালভাবে সংসার কর। 

সৃজা তীর্থকে যেন চিনতে পারছিল না। তার দুচোখ বেয়ে অঝোরে যেন জল পরছিল। সৃজা অফিসের সামনে নেমে গেল। সৃজা মনে মনে ভাবছিল সৃজার জন্য তীর্থের অপেক্ষা ও ভালবাসা সবই কি মিথ্যা ছিল? মানুষ কি অদ্ভুত পরিবর্তনশীল জীব। মুহূর্তের মধ্যে সে নিজের চেহারা পরিবর্তন করতে পারে।

মৃন্ময়ী ছিল সৃজার অফিসের এক সহকর্মী ও তার খুব ভাল বান্ধবী। সে সৃজার ব্যাপারে সব কিছু জানত। মৃন্ময়ী ও চাইত ওদের সম্পর্কটা ঠিক হয়ে যাক। কিন্তু আজ মৃন্ময়ী ও তীর্থের উপর খুব রেগে গেল। সে তীর্থকে ফোন করতে গেল। কিন্তু সৃজা তাকে ফোন করতে দিল না।
                                      Next part..................

আবার নতুন করে শুরু-৮ম পর্ব


English 

Previous part

Seeing Sreeja, Tirtho's anger increased and he took the car and stood in front of Sreeja and said, "What's the matter? After being so ill, Sudipto left you alone.😭😢..........................

It was very difficult to hear such nonsense words from Tirtho. But Sreeja thought that if she spoke coldly, maybe the misunderstandings would be fixed. So she got in the car and sat down. Immediately, Tirtho said to Sreeja, "If there is any problem in the car, please tell me, otherwise Sudipta can scold me."

Sreeja: Tirtho, you are thinking me wrong. I have no relationship with Sudipta. Yesterday I suddenly met Sudipta, and I was feeling very bad, so he came to leave me at home and nothing more. You can think such bad things about me that I can't even think.
Tirtho: Forgive me if I hurt you. I decided last night that I want to free you. I don't want to tie you up in a false relationship. You bring the divorce papers and I will sign it. At that time Sudipta's called Sreeja's . To saw that Tirtho said angrily to Sreeja, "Tell him now I have Divorced you. So don't worries, from now  you both can stay together.."

Sreeja did not seem to recognize Tirtho. It was so painful to her. She can not control herself. She was crying. Sreeja went down in front of the office. Sreeja was thinking in her mind, is he her Tirtho? Humans are strangely changing creatures. In any moment they could change her appearance.

Mrinmayee was a colleague in Sreeja and also her very good friend. She knew everything about the relationship of Tirtho and Sreeja. Mrinmayee also want their relationship to be fixed. But today Mrinmayee also very angry to Tirtho . She went to call Tirtho. But Sreeja did not let her to call.

                         Next Part......................


Post a Comment

1 Comments

Thanks for comments.